English Version

পাঠ পরিকল্পনা

সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে অমিত সম্ভাবনাময় ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সুচারুরূপে গড়ে তোলার লক্ষ্যে এ বিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়। মানবিক বোধ, মনন ও চেতনার পললে শিক্ষা মানুষকে আলোকময় পথে অগ্রসর হতে সহায়তা করে। মানবের অন্তর্নিহিত গুণাবলি শিক্ষার দ্বারা ঋদ্ধ হয়ে ওঠে।

 

আর শিক্ষার গতিকে পরিমিত ও পরিশীলিত বিন্যাসে অগ্রসর করে দেয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বাস্তব জীবনে যুগোপযোগী হয়ে শিক্ষার্থীবৃন্দ যাতে দৈহিক, মানসিক, নৈতিক ও সামাজিক জীবনবোধে উদ্বুদ্ধ হয়ে গড়ে উঠতে পারে সেটাই এই বিদ্যাপীঠের একাডেমিক কার্যক্রমের আদর্শ ও উদ্দেশ্য। এখানে শ্রেণীকক্ষে উন্নত পাঠদান, শ্রেণি-পরীক্ষা, সাময়িক, অর্ধ-বার্ষিক ও বার্ষিক পরীক্ষা এবং ক্ষেত্র পর্যায়ে প্রাক-নির্বাচনি, নির্বাচনি পরীক্ষা ও মডেল টেস্টের মাধ্যমে পাঠোন্নতির বিষয় নিশ্চিত করার অভীষ্ট লক্ষ্যকে সামনে রেখে সকল কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয়।

 

কেজি, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শাখার পাঠ্য বিষয়সমূহঃ

কেজি শ্রেণির পাঠ্যপুস্তক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্বাচিত। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শাখার পাঠ্যপুস্তক ও বিষয়সমূহ জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত এবং বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্বাচিত। নবম শ্রেণিতে বিজ্ঞান শাখায় অধ্যয়নের জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের নির্বাচনি ও জেএসসি পরীক্ষায় সকল বিষয়ে পাশসহ গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ে প্রতিটিতে ন্যূনপক্ষে শতকরা ৭০ নম্বর পেতে হয়। অবশিষ্ট ছাত্র-ছাত্রীদেরকে ব্যবসায়/মানবিক শাখায় পড়তে হয়।

 

একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির পাঠ্য বিষয়সমূহঃ

বিভাগ

আবশ্যিক বিষয়সমূহ

নৈর্বাচনিক বিষয়সমূহ

বিজ্ঞান

১। বাংলা
২। ইংরেজি
৩। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

প্রি-ইঞ্জিনিয়ারিং

প্রি-মেডিকেল

১। পদার্থ বিজ্ঞান
২। রসায়ন
৩। উচ্চতর গণিত
৪। চতুর্থ বিষয়ঃ

জীববিজ্ঞান/পরিসংখ্যান

১। পদার্থ বিজ্ঞান
২। রসায়ন
৩। জীববিজ্ঞান
৪। চতুর্থ বিষয়ঃ

উচ্চতর গণিত

ব্যবসায় শিক্ষা

১। বাংলা
২। ইংরেজি
৩। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

১। ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা
২। হিসাব বিজ্ঞান
৩। উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন
৪। পরিসংখ্যান (চতুর্থ বিষয়)